বিচারক, প্রশাসক ও দুদকের খাঁচা।

বনে জঙ্গলে মুক্তভাবে বাঘ সিংহ হাতি ঘুরে বেড়ায়, খাবারের সন্ধান করে। এটা তার স্বাভাবিক কাজ, নিত্যদিনের routine work. এ routine work-এর অংশ হিসাবে দুষ্ট শিকারির পাতা ফাঁদে(লতাপাতা দ্বারা আবৃত গর্ত, জাল, ইত্যাদি) সে পড়ে যায়। যখনই  সে আটক হয়ে খাঁচায় ঢোকে, তখন শিকারী বা খাঁচার মালীক ছাড়া পৃথিবীর আর কোন শক্তি নেই তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে। নির্দোষ হওয়া সত্বেও তার দোষ তার “দুর্ভাগ্য“। অপরদিকে অন্য বাঘ সিংহ হাতি জঙ্গলে মুক্তভাবে  ঘুরে বেড়ায়। তাদের গুন হচ্ছে তাদের “সৌভাগ্য”।

অনুরূপভাবে দুর্ভাগা বাঘ সিংহ হাতির ন্যায় কেহ যদি বিচারক, প্রশাসক ও দুদকের খাঁচায় আটক হয় পৃথিবীর আর কোন শক্তি নেই তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে। আটক ব্যক্তি যতই নির্দোষ হোক, ইহা কোন বিষয় নহে। অপরদিকে সৌভাগ্যবান বাঘ সিংহ হাতির ন্যায় মুক্ত কিন্তু অপরাধী, কিন্তু শিকারী বিচারক, প্রশাসক ও দুদকের খাঁচায় আটক হয়নি তারা বাইরে থেকে যত অপরাধই করুক, তাদের সে অপরাধ অপরাধই নহে। কেননা তারা খাঁচায় আটক নহে।

Related posts