ঘরে বসে গুগল ম্যাপ দেখে ড্যাপ তৈরী: পূর্ত মন্ত্রী

পূর্ত মন্ত্রী মোশাররফ হোসেন বলেছেন যে, ১৯৯৫-২০১৫সালের ঢাকার ড্যাপ(DAP-detailed area plan) ঘরে বসে গুগল ম্যাপ দেখে তৈরী করা হয়েছে। একজন মন্ত্রী যখন একথা বলেন, তখন তিনি নিশ্চিত হয়েই বলেছেন। তাহার কথা সত্য হলে, ড্যাপ তৈরীতে যে কয়েক কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে তা আত্মসাৎ হয়েছে, যা বিরাট দুর্নীতি। এ দুর্নীতির সাথে রাজউকের সাবেক ও বর্তমান অনেক কর্মকর্তা-কর্মচারী, ড্যাপ তৈরীতে নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানসমুহ সরাসরি জড়িত। আর্থিক দুর্নীতি ছাড়াও এখানে (যদি ঢাকার ড্যাপ(DAP-detailed area plan) ঘরে বসে গুগল ম্যাপ দেখে তৈরী করা হয়ে থাকে)বিরাট নৈতিক দুর্নীতি হয়েছে। এত বড় দুর্নীতির জন্য পূর্ত মন্ত্রী মোশাররফ হোসেন বা অন্যরা আইনগত কি ব্যবস্থা নিয়েছেন।

ড্যাপ তৈরীতে নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানসমুহ কি দুর্নীতি করেছে কি করেনি, তারা ঢাকার উন্নয়নে কি প্রস্তাব করেছে কি করেনি, প্রস্তাবিত রাস্তা-ঘাট, স্কুল-কলেজ-ভার্সিটি, ইত্যাদি, ইত্যাদি কবরস্থান-শ্মশানঘাট নাকি আর কোথায় পড়বে না পড়বে, ইত্যাকার বিষয়ে কোন ভুল ত্রুটি হতে পারে, নাও হতে পারে। তবে প্রাকৃতিক জলাধার, স্বচ্ছসলিল পানির ধারকবাহক গভীর প্রাকৃতিক জলাশয়, বণ্যা প্রবাহ, পানি প্রবাহ এলাকা, ইত্যাদি সম্পর্কে যে তথ্য দিয়েছে তা ৯৯% সত্য।

এটা ছাড়াও আদম শুমারির ন্যায় মানুষের শিক্ষাগত যোগ্যতা, পেশা, আয়, জীবন যাত্রার মান, ইত্যাদি সম্পর্কে যেসব বাড়তি তথ্য দিয়েছে, এক কথায় তা অনবদ্য। DAP-নিয়ে চরম দুর্নীতিবাজ কিছু REHAB & BLDA-সদস্য শুরু থেকেই আপত্তি করে আসছেন। তাদের সাথে সূর মিলিয়ে কোন মন্ত্রী যদি এরূপ কথা(ঢাকার ড্যাপ(DAP-detailed area plan) ঘরে বসে গুগল ম্যাপ দেখে তৈরী করা হয়েছে) বলেন, তাহলে সে মন্ত্রী যে, তাদের(চরম দুর্নীতিবাজ কিছু REHAB & BLDA-সদস্য) কাছে বিক্রী হয়ে গেছেন তা আর প্রমানের অপেক্ষা রাখে? ১৯৯৫-২০১৫সালের ড্যাপ যদি ঘরে বসে গুগল ম্যাপ দেখে তৈরী করা হয়ে থাকে তাহলে তা প্রমান করতেও ১৫২৮বর্গকিলোমিটার এলাকা ঘুরে কয়েকশত লোকের কয়েক সপ্তাহ এমনকি কয়েকমাস লাগবে। তার ব্যবস্থা না করে পূর্ত মন্ত্রী মোশাররফ হোসেন কিভাবে একথা বলেন?

Related posts