৪(চার) জেলাজজের দুর্নীতি।

”দায়িত্বে অবহেলা-অগ্রণী ব্যাংকের কোম্পানি সচিব সাময়িক বরখাস্ত http://www.jugantor.com/second-edition/2016/08/15/53223/ সঠিকভাবে প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন না করায় রাষ্ট্রায়ত্ত অগ্রণী ব্যাংকের কোম্পানি সচিব খন্দকার সাজেদুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। রোববার সন্ধ্যায় ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সূত্র জানায়, আদালতের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে একটি গ্রুপের ঋণ সংক্রান্ত তথ্য পাঠানো হয়। কিন্তু ফ্যাক্সে পাঠানো ওই চিঠি সম্পূর্ণরূপে যথাযথ জায়গায় পৌঁছায়নি। দায়িত্বে অবহেলার কারণে তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন আদালত। আদালতের নির্দেশে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।” বিভাগীয় স্পেশাল জজকোর্ট  সিলেটে ও বর্তমানে জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল, সিলেটে বিচারাধীন স্পেশাল ২১/০৯, ২৩/০৯,…

Read More

সৎ লোকের প্রকারভেদ।

আমরা ইতিপূর্বে অসৎ লোকের সংজ্ঞা বা প্রকারভেদ নিয়ে আলোচনা করেছি। এখন সৎ লোকের সংজ্ঞা বা প্রকারভেদ নিয়ে আলোচনা করব। সৎ লোক প্রধানতঃ চার প্রকারের।(আমাদের গবেষনামতে)।(১)প্রকৃত সৎ(২)সৎ কিন্তু vindictive (ক্ষমাহীন, ক্ষমাশূন্য, প্রতিহিংসাপরায়ন, সন্দেহপ্রবন) (৩)সুযোগের অভাবে সৎ (৪)সাহসের অভাবে সৎ। (১)প্রকৃত সৎঃ-এঁরা যেকোন পরিবেশ পরিস্থিতিতেই সৎ। ব্যবসা-চাকুরী বা অন্য যেকোন ক্ষেত্রেই সৎ। সমাজে, রাষ্ট্রে এঁদের সংখ্যা খুবই নগন্য।ইঁনারা vindictive নহেন, broadminded. (২)সৎ কিন্তু vindictive (ক্ষমাহীন, ক্ষমাশূন্য, প্রতিহিংসাপরায়ন, সন্দেহপ্রবন):-এরা কোন কোন ক্ষেত্রে অসৎ-দের চেয়েও খারাপ। এরা মনে করে তারা নিজেরাই সৎ বা ভাল, আর সবাই অসৎ বা খারাপ। (৩)সুযোগের অভাবে সৎ (৪)সাহসের অভাবে…

Read More

সততা-অসততার পার্থক্য।

প্রায় ৭বছর যাবৎ মামলার কাজে একই কোর্টের পরপর ৪জন জেলাজজকে সামনাসামনি তাদের বিচার কাজে দেখেছি। আরও কয়েকশত বিচারকের বিচারকাজ কয়েকশত দিন সামনাসামনি, একেকজনকে ধারাবাহিকভাবে ১৫-২০কার্য্যদিবস দেখেছি, যাদের মধ্যে শতাধিক জেলাজজ ও অতিরিক্ত জেলাজজ আছেন এবং অতিরিক্ত জেলাজজরা দায়রা বিচারে জেলাজজের সমান ক্ষমতাবান। তবে আজকের আলোচনা প্রথমোক্ত ৪(চার)জন জেলাজজকে নিয়েই। ১।এ ৪জনের প্রথমঃ- (ক)২জন আর্থিকভাবে অসৎ ইহা ১০০% নিশ্চিত। (খ)তাদের মারাত্মক দায়িত্ব-কর্তব্যে অবহেলা আছে। যেমন কাজ/এজলাস করার প্রচুর সময়, সুযোগ, প্রয়োজন থাকা সত্বেও তারা প্রতি কার্য্যদিবসে গড়ে ১(এক)ঘন্টাও এজলাস করেনি। দেশের আরও অনেক জেলাজজের তূলনায় মাসে/ বছরে অনেক কম সংখ্যক মামলা…

Read More

কোকিল ছানা, ঘুষখোর এবং …

কাকের বাসায় কোকিল ছানার বড় হওয়ার পর বুঝা যায় তা কাকের ছানা নহে, কোকিল ছানা। ঘটনা যাহাই হোকনা কেন, একসময় তা প্রকাশ হয়। তবে কোকিল ছানা কাকের বা কোকিলের অবৈধ সন্তান নহে। তবে আমাদের সমাজে লাখ লাখ কোটি কোটি অবৈধ সন্তান আছে, যাদেরকে চেনা যায়না। তবে তাদেরকেও চেনা যায়, কিন্তু আমরা বলিনা। ঘুষ-দুর্নীতির মাধ্যমে তাদেরকে চেনা যায়। ঢাকা মেডিক্যালের দুজন পুরুষ-মহিলা ডাক্তার গভীর রাত্রে মহিলা ডাক্তারের বাসায় তার স্বামীর অনুপস্থিতিতে রাত্রি যাপনকালে আশেপাশের লোকজনের হাতে আটক হন। যদিও সিংহভাগ ক্ষেত্রেই এসব প্রকাশ হয়না। যেহেতু মহিলা ডাক্তার বিবাহিতা এবং স্বামী জীবিত,…

Read More

Diabetes, over population, corruption.

নীরব ঘাতক বলে পরিচিত ডায়াবেটিস কোন জীবানুবাহিত বা ধূমপান, মদপান জাতীয় বদভ্যাসজনিত কোন রোগ নহে। সুস্থ শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় “চিনি” জাতীয় পদার্থ, ইত্যাদি যখন নানা কারনে প্রয়োজনের বেশী হয়ে রক্তে মিশে যায় তখনই তা ডায়াবেটিস রোগের রূপ ধারন করে। যেহেতু ইহা রক্তে মিশে থাকে, যেহেতু রক্ত শরীরের রন্ধ্রে রন্ধ্রে থাকে, যেহেতু এতে কোন ব্যথা অনুভূত হয়না, কোন কারনে রোগী টের না পেলে সীমা ছাড়িয়ে যায়, শরীরের অঙ্গ প্রত্যঙ্গ নীরবে ধ্বংস করে ফেলে, সেজন্য একে নীরব ঘাতক বলে। যাহাই হোকনা কেন, যে কারনে(বংশগত, ইত্যাদি)হোকনা কেন, শরীরের প্রয়োজনীয় তথা ভাল জিনিষ যখন…

Read More

দুর্নীতি, দুরারোগ্য ব্যাধি এবং মানসিক অসুস্থতা।

বিশ্বখ্যাত বীর ও সম্রাট নেপোলিয়ন বোনাপার্টের একটি মানসিক রোগ ছিল। আর তা হচ্ছে, বিড়াল দেখলে তিনি শুধু ভয়ই পেতেন না, কখনও কখনও মূর্ছা যেতেন। তাঁহার মত বীরের পৃথিবীর কোন কিছুকেই ভয় পাওয়ার কথা নহে। বড়জোর সিংহ, বাঘ, ভালুক, হাতী দেখলে একটু ভয় পেতেই পারেন। বিড়াল এত নিরীহ প্রানী যে, ইহা কাউকে কামড়ায় না, কামড়ালেও ইহার কোন বিষ নাই, ইহাতে মানুষের কোন ক্ষতি হয়না। বরং পোষা প্রানীর মধ্যে পৃথিবীর সকল শ্রেনীর মানুষের কাছে, সম্ভবতঃ বিড়ালই সবচেয়ে বেশী প্রিয়। এতে সুস্পষ্টভাবে প্রমানিত যে, বিড়াল দেখলে মূর্ছা যাওয়া বা ভয় পাওয়া তাহার(নেপোলিয়ন) একধরনের…

Read More

দুর্নীতি, দুঃশাসনঃ ব্রিটিশ, পাকিস্তান, বাংলাদেশ।

দুই বন্ধু একসাথে খাচ্ছে। বাটিতে দুই টুকরো মাংস। এক টুকরো বড়, আরেকটি ছোট। বাটির বড় টুকরো মাংস প্রথমে একজন নিয়ে নিল। দ্বিতীয়জন বলল, কাজটি অভদ্রজনোচিত হয়েছে। প্রথমজন বলল কেন, কিভাবে? দ্বিতীয়জন বলল প্রথমে যে নিবে, সে ছোটটি নিবে, এটাই ভদ্রতা। প্রথমজন বলল, বড়টি কার জন্য থাকবে? দ্বিতীয়জন বলল, কেন, তোর জন্য। প্রথমজন বলল আমিতো তাই করেছি, অর্থাৎ বড় টুকরো মাংসই নিয়েছি। ব্রিটিশরা, পাকিস্তানীরা বড় টুকরো নিয়েছে, বাংলাদেশীরা তাই করছে। প্রশাসন ক্যাডারে শূন্য পদের বিপরীতে কয়েকগুন বেশী পদোন্নতি, পদোন্নতি-পোস্টিং-এ দলীয়করন, বঞ্চিতকরন, আড়াইলাখ শূন্যপদ, বেতন বৈষম্য, নন ক্যাডার মেধাবীদের নিম্নস্কেলে বেতন, দুর্নীতিতে…

Read More

“কেবল পয়সা খাইলেই দুর্নীতি হয় না।… বঙ্গবনধু শেখ মুজিবুর রহমান।“

“কেবল পয়সা খাইলেই দুর্নীতি হয় না। বিবেকের বিরুদ্ধে কাজ করা যেমন দুর্নীতি, কাজে ফাঁকি দেওয়াও তেমনি দুর্নীতি। একইভাবে নীচের অফিসারদের কাজ না দেখাটাও দুর্নীতি। – বঙ্গবনধু শেখ মুজিবুর রহমান।“ ১৯৭৫সালে বঙ্গভবনে এক সভায় বঙ্গবনধু শেখ মুজিবুর রহমান দুর্নীতিকে সুষ্পষ্টভাবে সংজ্ঞায়িত করে গেছেন। কিন্তু এখনও বহু লোক নগদ অর্থ ঘুষ নেওয়া বা সরকারী সম্পদ আত্মসাৎ করাটাকেই দুর্নীতি বলে মনে করে। কিন্তু এর বাইরেও যে অনেক বড় দুর্নীতি আছে তা অনেকেই মনে করেন না বা স্বীকার করেন না। দুর্নীতির(Corruption)-সংজ্ঞায় এ ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আমরা অনেক পরহেজগার বিচারককে দেখেছি, যারা সাড়ে ছয়…

Read More

১বছরের দুর্নীতি ও তার বিচার।

আমাদের গবেষনামতে দেশে বছরে প্রায় ২০(বিশ)কোটি সংখ্যক দুর্নীতির ঘটনা ঘটে। কোন কোন ব্যক্তি বছরে কয়েকশত, এমনকি কয়েক হাজার সংখ্যক দুর্নীতি করে। বিশেষ বিশেষ কিছুক্ষেত্র ব্যতীত, বড়বড় দুর্নীতিগুলো বহুপক্ষের যোগসাজশে হয়ে থাকে। সেগুলো সাধারনত: প্রকাশ পায়না বা অভিযোগ হয়না। যেমন বেসরকারী হাউজিং-এর কার্য্যক্রমে রাজউক, পরিবেশ অধিদপ্তরসহ বহু সরকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারী, প্লট বেচা-কেনায় ক্রেতা-বিক্রেতা, রেজিস্ট্রি অফিস, ইনকাম ট্যাক্স অফিসসহ বহু পক্ষ দুর্নীতির সাথে জড়িত। এবং এখানে প্রতিটি ঘটনায় ন্যুনতম কয়েকলক্ষ থেকে কয়েক কোটি টাকার দুর্নীতি হয়। [দ্রস্টব্যঃ- http://www.prothom-alo.com/opinion/article/628138/ মূল অভিযুক্তকে বাদ দিয়ে মামলা কেন?-বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারি। …………….. উল্লেখ্য, দুদক যে ব্যক্তিকে…

Read More

দুর্নীতির(Corruption)-সংজ্ঞা।

অনেক উচ্চশিক্ষিত, উচ্চপদস্থ, উচ্চবিত্ত ব্যক্তি দৈনন্দিন জীবনের খুঁটিনাটি সম্পর্কে তেমন ধারনা রাখেননা বা তা তাদের থাকেনা। ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, মাস্টার্স/ডক্টরেট ডিগ্রীধারী ব্যক্তি, যাদের শহরে-গ্রামে অনেক জমি-জমা আছে, তারা খাজনা. দাখিলা, পর্চা, খতিয়ান, দলিল, ইত্যাদি সম্পর্কে তেমন কিছুই জানেননা। সরকারী-বেসরকারী অফিস আদালতের অনেক নিয়ম কানুন সম্পর্কে ভাল ধারনাই তাদের অনেকের নাই। চরিত্রহীনতা বলতে অনেকেই এখনও অবৈধ যৌনকাজকেই বুঝে। যদিও এর (চরিত্রহীনতা) সংজ্ঞা ও ক্ষেত্র ব্যাপক। শুধু অবৈধ যৌনকাজই চরিত্রহীনতা নহে। বেপর্দা(নারী-পুরুষের উভয়ের), ইভটিজিংসহ ইচ্ছাকৃতভাবে বেগানা নারী ও পুরুষ পরস্পরকে তার সংবেদনশীল অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ প্রদর্শন করে, যৌনতা প্রকাশ পায় এরূপ কথা বলে প্রলোভিত, প্ররোচিত,…

Read More