২০ কোটি টাকার কাজ ভাগ-বাটোয়ারা

খুলনা  বিভাগীয় শিক্ষা প্রকৌশল অধিদফতরের   প্রায় ১৯ কোটি ২১ লাখ টাকার কাজ ভাগ-বাটোয়ারা করে নিয়েছে  আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের একটি সিন্ডিকেট। শুধুমাত্র যেখানে প্রক্কলিত দরের নিম্নে(less) উদ্ধৃত করে কাজ পাওয়া যায়, এরূপ ২-১টি ব্যতীত,(এবং আন্তর্জাতিক টেন্ডারে/টার্নকি কাজে, যেখানে আরও অনেক বেশী অর্থের কারচুপি হয়) বাংলাদেশের প্রায় ৯৯%ক্ষেত্রেই ওপেন নেগোসিয়েসনের মাধ্যমে কাজ নেওয়া হয়। এর প্রায় সকল ক্ষেত্রেই ৫০-৬০% টাকা ঠিকাদারের লাভ, দপ্তরের পার্সেন্টেজ/কমিশন, চুরি হিসেবে চলে যায়। প্রকৃত কাজ হয় ৪০-৫০%, যাতে অতি নিম্নমানের কাজ হয়। কিছু কিছু ক্ষেত্রে, এরূপ রাজনৈতিক সিন্ডিকেটের প্রভাবযুক্ত ক্ষেত্রে কাজ ৩০-৪০%ও হয়না। বাকীটা ভাগ…

Read More

দশ লাখ অবৈধ রিকশা ঢাকায়। বৈধ মাত্র ৮০ হাজার, সর্বশেষ লাইসেন্স ২৮ বছর আগে-

  উপরোক্ত শিরোনামে এসংবাদটি একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত হয়। উন্নত রাস্ট্রের রাজধানীতে যেখানে বৈধভাবেই কোন রিক্সা থাকার কথা নহে, সেখানে অবৈধভাবে কিভাবে এত রিক্সা ঢাকায় থাকে? এর পিছনে শুধু দায়িত্ব ঠেলাঠেলি নহে বিরাট ঘুষ-দুর্নীতি-চাঁদাবাজীর ব্যাপার আছে। মাননীয় মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাহেব কয়েকলাখ সিএনজি, অটো হাইওয়েতে চলাচল বন্ধ করতে পারলে অন্যরা পারেননা কেন? দায় দায়িত্ব ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের, রাজউকের, পুলিশের, সড়ক মন্ত্রনালয়ের, নাকি অন্য কারো, ইহা কোন বিষয় নহে। যাহা অবৈধ বা বেআইনি, সেখানে পুলিশের প্রবেশ-হস্তক্ষেপ-ব্যবস্থা নেওয়া সর্বত্র-সর্বদা। বর্তমানের মন্ত্রী, এমপি, সচিব, এরূপ উচ্চপদস্থ, উচ্চ শিক্ষিত, উচ্চবিত্ত ব্যক্তিদের তখনও এখনও অনেকে…

Read More

৭ফুটXদেড়ফুট-মিটফোর্ড নার্সিং ছাত্রাবাস

বহুল প্রচারিত দৈনিক প্রথম আলোর সংবাদে প্রকাশ :- মিটফোর্ড নার্সিং ছাত্রাবাসের ছাত্রীরা ৭ফুট বাই দেড় ফুট যায়গায় থাকেন। আরও বহু অসুবিধা(দ্রস্টব্য- মিটফোর্ড নার্সিং ছাত্রীনিবাস- Bottom of Form সাত ফুট বাই দেড় ফুট- http://www.prothom-alo.com/bangladesh/article/786157/   … …. …জনপ্রতি সাত ফুট বাই দেড় ফুট। নতুন ভবনের নতুন কক্ষগুলো আকারে আরও ছোট। এখানে কোনোরকমে দুজন থাকতে পারেন। থাকছেন চারজন ……..)। আমার জানা ও দেখামতে মিটফোর্ড হাসপাতালের হিসাব শাখার একজন স্টাফের অল্প বয়সে(৩০-৩২বছর বয়স) কয়েক কোটি টাকার সম্পদ। কথা প্রসঙ্গে তার এক নিকটাত্মীয় জানায়, ১০কোটি টাকার একটি বিল্ডিং ৪কোটি টাকায় বানিয়ে বাকী টাকা ভাগ বাটোয়ারা…

Read More

বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করলেন সিবিএ নেতা

বাংলাদেশ ব্যাংকের সিবিএ নেতারা কয়েকবছর পূর্বেও প্রধান কার্য্যালয়ের সিনিয়র অফিসারকে মারধর করেছে। সেজন্য শাস্তিস্বরূপ কয়েকজন চাকুরীচ্যুতও হয়েছিল। পরে আবার তাদেরকে পূনর্বহাল করা হয়। বাংলাদেশে সেবাখাতে(সেবাখাতের বাইরেও) অনেক দুর্নীতি হয়। কিন্তু যে অফিসে যত দুর্নীতিই হোকনা কেন, একমাত্র সিবিএ নেতা-কর্মী ব্যতীত বাকী সবাই স্বাভাবিক কর্মঘন্টাতো বটেই, তার বাইরেও অনেক সময় বেশী কাজ করে। বেশী সময়ের কাজের জন্য তারা(কর্মচারীরা, কর্মকর্তারা নহে) ওভার টাইম ভাতা পান। কিন্তু প্রায় সকল সিবিএ নেতা-কর্মীরা এক মুহুর্তও তাদের রুটিন ওয়ার্ক করেনা। উপরন্তু বহুগুন ওভার টাইম ভাতা নেওয়া, ভ্রমন না করে ভ্রমন ভাতা নেওয়া, নিয়োগ, বদলী, টেন্ডার বানিজ্যসহ…

Read More

উত্তরায় ২০হাজার ফ্ল্যাট নির্মাণ এবং দুর্নীতি

গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘এমওইউ অনুযায়ী এ কাজে মালয়েশিয়া পুরো টাকা বিনিয়োগ করবে। ৩০ মাসের মধ্যে ফ্ল্যাট তৈরি করে দেবে। প্রতি বর্গফুটের নির্মাণখরচ ধরা হবে ৩৪৩৫ টাকা। নির্মাণ শেষের ৩৬ মাস পর তারা রাজউকের কাছ থেকে টাকা নেবে। এর চেয়ে ভালো প্রস্তাব আর হয় না।’ পিডব্লিউডি স্ট্যান্ডার্ডের প্রতি বর্গফুট ফ্ল্যাটের নির্মান ব্যয়(ভূমির মূল্য ব্যতীত) কোন অবস্থাতেই ২০০০ (দুই হাজার) টাকার বেশী নহে।  এটা শ্রমিকের পারিশ্রমিক ও ব্যবহৃত যন্ত্রপাতির মূল্যসহ। প্রতি বর্গফুটের নির্মাণখরচ ৩৪৩৫ টাকা ধরা হলে তারা প্রতিবর্গফুটে ন্যুনতম ১৫০০টাকা মুনাফা করবে। প্রতিটি গড়ে ১২০০ বর্গফুটের ২০০০০ফ্ল্যাটে…

Read More

ঘুষ : বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানি

বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানি বাংলাদেশের ১৬কোটি মানুষের সকলের সমানভাবে প্রয়োজন। কিন্তু কতজন কত সন্তোষজনকভাবে পেয়েছে, পেয়ে কত সন্তোষজনকভাবে তা ব্যবহার করতে পারছে, বিশেষ করে বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পানি তা তারা নিজেরাই জানে। যারা এখনও পায়নি, পাওয়ার জন্য তাদের যে আকুতি তা তারা এবং সৃষ্টিকর্তাই জানেন। সে আকুতির তীব্রতা লিখে শেষ করা যাবেনা। কেরোসিনের, মোমের, ইত্যাদির বাতির বিপরীতে বিদ্যুতের ব্যবহার এবং নানামুখী প্রয়োজন ও ব্যবহার যেমন বানিজ্যিক ও শিল্প কারখানার ব্যবহার মানুষকে তা(বিদ্যুৎ)পাওয়ার জন্য অদম্য করে তোলে বা তুলেছে। লাকড়ী বা অন্যভাবে রান্নার তূলনায় গ্যাসের ব্যবহার এককথায় আরামদায়ক ও রাজকীয়। পানি জীবনধারন,…

Read More

Private Land developer-দের দুর্নীতি ও নির্মমতা, নিষঠুরতা।

নানা কৌশলে, সুকৌশলে, কুটকৌশলে, অপকৌশলে, ২-৪-৬ বা ততোধিক আইন অমান্য করে টাকা রোজগার করতে গিয়ে কতিপয় Land developer-এর দুর্নীতি নির্মমতা, নিষ্ঠুরতার পর্যায়ে পড়ে।ঢাকা শহরে বসবাসরত, প্রতিনিয়ত যাতায়াতরত কোটি কোটি মানুষের দৈনন্দিন জীবনের জন্য যে বিশুদ্ধ বাতাসের প্রয়োজন সে বাতাস নির্মল করার জন্য, জীববৈচিত্রের জন্য ঢাকার চারিদিকের প্রাকৃতিক জলাধার অক্ষুন্ন থাকা দরকার। প্রাকৃতিক জলাধারগুলো ভরাট হওয়ায় বাতাসে ভাসমান ধূলাবালি, গাড়ীর কালো ধোঁয়ার দূষিত পদার্থ শোষনের(absorption)জন্য যে পানি দরকার তা আর নেই বললেই চলে। ঢাকা শহরের বৃষ্টির পানি নেমে যাওয়ার জন্য যে suction force দরকার, এসব প্রাকৃতিক জলাধারগুলো ভরাট করে ফেলায় সে…

Read More

রাজউকের দুর্নীতির ফাঁদ

আমরা ইতিমধ্যে রাজউক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতির মান ও পরিমান নিরুপন করতে গিয়ে দেখিয়েছি যে, বিদ্যুতের মিটার রিডারদের(যারা দুর্নীতি করে) দুর্নীতির চেয়েও রাজউক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতি ও দায়িত্ব কর্তব্যে অবহেলা কয়েক হাজার গুন বেশী। তাদের(রাজউক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের)দায়িত্ব কর্তব্যে অবহেলা মানে দুর্নীতির ফাঁদ তৈরী করা। খোদ রাজউকের চেয়ারম্যানের দপ্তর থেকে তৈরী করা প্রতিবেদনেই দেখা যায় যে, পুরানা পল্টন, সিদ্ধেশ্বরী, মগবাজার এলাকার ৪-৫টি ভবন নির্মানে ৬-১৮তলার অনুমোদন কারচুপিতে অতিরিক্ত প্রায় ১৪৩কোটি ২০লাখ টাকার আর্থিক সুবিধা ভবন মালীক ও ডেভেলপার প্রতিষ্ঠানকে দেয়া হয়েছে। এখানেই শেষ নহে, ঢাকা সিটিতে বড় ধরনের কারচুপির এরূপ কয়েক হাজার ভবন পওয়া যাবে,…

Read More

সংবাদ সম্মেলনে টিআইবি-প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে দুদক স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারছে না

দুদকের সচ্ছতা ও সক্ষমতা সম্পর্কে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, “দুদক প্রভাবমুক্ত থেকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে না। তার উদাহরন বিভিন্ন সময়ে পাওয়া গেছে। এর আগে ব্যাংকিং সেক্টর, রিয়েল এস্টেট কোম্পানিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রভাবমুক্ত হয়ে দুদক যে সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে কাজ করছে, একথা বলা যাবে না। আমাদের পর্যবেক্ষন-পরিবেশ সংরক্ষন আইন, জলাধার  আইন, রিয়েল এস্টেট উন্নয়ন সংক্রান্ত সকল আইন অমান্য করা ছাড়াও রেজিস্ট্রেসন ফি ফাঁকি দেওয়া, আয়কর ফাঁকি দেওয়াসহ রিয়েল এস্টেট কোম্পানিদের আওতায় নির্মিত, নির্মানাধীন ভবনে, আবাসিক এলাকায় যে অনিয়ম দুর্নীতি হয়েছে, তাতে ঢাকা শহর ও আশেপাশের এলাকায় অন্ততঃ ১০(দশ)লাখ দুদকের…

Read More

২-৩জনে ২০-৩০জনের ঘুষ যোগায়।

ঠিকাদারী কাজে টপ-টু-বটম অনেকেই জড়িত থাকে। এদের মধ্যে কেহ সৎ থাকতে পারেন। কার্য্যাদেশের সাথে কাজের/সরবরাহের/সেবার তালীকা(ওয়ার্ক সিডিউল) সংযুক্ত থাকে। প্রায় সকল আইটেমে লিখা থাকে, “নক্সা ও ভারপ্রাপ্ত প্রকৌশলীর নির্দেশ ও সন্তুষ্টি মোতাবেক কাজটি করিতে হইবে।”  প্রকৌশল কাজের ক্ষেত্রে ভারপ্রাপ্ত প্রকৌশলীর(সাধারনতঃ সহকারী/উপবিভাগীয় প্রকৌশলী-AE/SDE) অধীনে তদারককারী কর্মকর্তা (সাধারনতঃ উপসহকারী প্রকৌশলী-SAE) থাকেন, যিনি সার্বক্ষনিক কার্য্যস্থলে(সাইটে) সশরীরে উপস্থিত থেকে কাজের তদারক করেন। মূলতঃ কাগজে কলমে ভারপ্রাপ্ত প্রকৌশলী ও বাস্তবে উপসহকারী প্রকৌশলী কাজের মান ও পরিমানের(Quality & quantity) জন্য ১০০% এ দুজন দায়ী। এদের উপরে থাকেন দপ্তর প্রধান বা নির্বাহী প্রকৌশলী(XEN)। নির্বাহী প্রকৌশলী কাজের মান…

Read More