ঘুষ : বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানি

বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানি বাংলাদেশের ১৬কোটি মানুষের সকলের সমানভাবে প্রয়োজন। কিন্তু কতজন কত সন্তোষজনকভাবে পেয়েছে, পেয়ে কত সন্তোষজনকভাবে তা ব্যবহার করতে পারছে, বিশেষ করে বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পানি তা তারা নিজেরাই জানে। যারা এখনও পায়নি, পাওয়ার জন্য তাদের যে আকুতি তা তারা এবং সৃষ্টিকর্তাই জানেন। সে আকুতির তীব্রতা লিখে শেষ করা যাবেনা। কেরোসিনের, মোমের, ইত্যাদির বাতির বিপরীতে বিদ্যুতের ব্যবহার এবং নানামুখী প্রয়োজন ও ব্যবহার যেমন বানিজ্যিক ও শিল্প কারখানার ব্যবহার মানুষকে তা(বিদ্যুৎ)পাওয়ার জন্য অদম্য করে তোলে বা তুলেছে। লাকড়ী বা অন্যভাবে রান্নার তূলনায় গ্যাসের ব্যবহার এককথায় আরামদায়ক ও রাজকীয়। পানি জীবনধারন,…

Read More

Private Land developer-দের দুর্নীতি ও নির্মমতা, নিষঠুরতা।

নানা কৌশলে, সুকৌশলে, কুটকৌশলে, অপকৌশলে, ২-৪-৬ বা ততোধিক আইন অমান্য করে টাকা রোজগার করতে গিয়ে কতিপয় Land developer-এর দুর্নীতি নির্মমতা, নিষ্ঠুরতার পর্যায়ে পড়ে।ঢাকা শহরে বসবাসরত, প্রতিনিয়ত যাতায়াতরত কোটি কোটি মানুষের দৈনন্দিন জীবনের জন্য যে বিশুদ্ধ বাতাসের প্রয়োজন সে বাতাস নির্মল করার জন্য, জীববৈচিত্রের জন্য ঢাকার চারিদিকের প্রাকৃতিক জলাধার অক্ষুন্ন থাকা দরকার। প্রাকৃতিক জলাধারগুলো ভরাট হওয়ায় বাতাসে ভাসমান ধূলাবালি, গাড়ীর কালো ধোঁয়ার দূষিত পদার্থ শোষনের(absorption)জন্য যে পানি দরকার তা আর নেই বললেই চলে। ঢাকা শহরের বৃষ্টির পানি নেমে যাওয়ার জন্য যে suction force দরকার, এসব প্রাকৃতিক জলাধারগুলো ভরাট করে ফেলায় সে…

Read More

রাজউকের দুর্নীতির ফাঁদ

আমরা ইতিমধ্যে রাজউক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতির মান ও পরিমান নিরুপন করতে গিয়ে দেখিয়েছি যে, বিদ্যুতের মিটার রিডারদের(যারা দুর্নীতি করে) দুর্নীতির চেয়েও রাজউক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতি ও দায়িত্ব কর্তব্যে অবহেলা কয়েক হাজার গুন বেশী। তাদের(রাজউক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের)দায়িত্ব কর্তব্যে অবহেলা মানে দুর্নীতির ফাঁদ তৈরী করা। খোদ রাজউকের চেয়ারম্যানের দপ্তর থেকে তৈরী করা প্রতিবেদনেই দেখা যায় যে, পুরানা পল্টন, সিদ্ধেশ্বরী, মগবাজার এলাকার ৪-৫টি ভবন নির্মানে ৬-১৮তলার অনুমোদন কারচুপিতে অতিরিক্ত প্রায় ১৪৩কোটি ২০লাখ টাকার আর্থিক সুবিধা ভবন মালীক ও ডেভেলপার প্রতিষ্ঠানকে দেয়া হয়েছে। এখানেই শেষ নহে, ঢাকা সিটিতে বড় ধরনের কারচুপির এরূপ কয়েক হাজার ভবন পওয়া যাবে,…

Read More

সংবাদ সম্মেলনে টিআইবি-প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে দুদক স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারছে না

দুদকের সচ্ছতা ও সক্ষমতা সম্পর্কে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, “দুদক প্রভাবমুক্ত থেকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে না। তার উদাহরন বিভিন্ন সময়ে পাওয়া গেছে। এর আগে ব্যাংকিং সেক্টর, রিয়েল এস্টেট কোম্পানিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রভাবমুক্ত হয়ে দুদক যে সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে কাজ করছে, একথা বলা যাবে না। আমাদের পর্যবেক্ষন-পরিবেশ সংরক্ষন আইন, জলাধার  আইন, রিয়েল এস্টেট উন্নয়ন সংক্রান্ত সকল আইন অমান্য করা ছাড়াও রেজিস্ট্রেসন ফি ফাঁকি দেওয়া, আয়কর ফাঁকি দেওয়াসহ রিয়েল এস্টেট কোম্পানিদের আওতায় নির্মিত, নির্মানাধীন ভবনে, আবাসিক এলাকায় যে অনিয়ম দুর্নীতি হয়েছে, তাতে ঢাকা শহর ও আশেপাশের এলাকায় অন্ততঃ ১০(দশ)লাখ দুদকের…

Read More

২-৩জনে ২০-৩০জনের ঘুষ যোগায়।

ঠিকাদারী কাজে টপ-টু-বটম অনেকেই জড়িত থাকে। এদের মধ্যে কেহ সৎ থাকতে পারেন। কার্য্যাদেশের সাথে কাজের/সরবরাহের/সেবার তালীকা(ওয়ার্ক সিডিউল) সংযুক্ত থাকে। প্রায় সকল আইটেমে লিখা থাকে, “নক্সা ও ভারপ্রাপ্ত প্রকৌশলীর নির্দেশ ও সন্তুষ্টি মোতাবেক কাজটি করিতে হইবে।”  প্রকৌশল কাজের ক্ষেত্রে ভারপ্রাপ্ত প্রকৌশলীর(সাধারনতঃ সহকারী/উপবিভাগীয় প্রকৌশলী-AE/SDE) অধীনে তদারককারী কর্মকর্তা (সাধারনতঃ উপসহকারী প্রকৌশলী-SAE) থাকেন, যিনি সার্বক্ষনিক কার্য্যস্থলে(সাইটে) সশরীরে উপস্থিত থেকে কাজের তদারক করেন। মূলতঃ কাগজে কলমে ভারপ্রাপ্ত প্রকৌশলী ও বাস্তবে উপসহকারী প্রকৌশলী কাজের মান ও পরিমানের(Quality & quantity) জন্য ১০০% এ দুজন দায়ী। এদের উপরে থাকেন দপ্তর প্রধান বা নির্বাহী প্রকৌশলী(XEN)। নির্বাহী প্রকৌশলী কাজের মান…

Read More

৪(চার) জেলাজজের দুর্নীতি।

”দায়িত্বে অবহেলা-অগ্রণী ব্যাংকের কোম্পানি সচিব সাময়িক বরখাস্ত http://www.jugantor.com/second-edition/2016/08/15/53223/ সঠিকভাবে প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন না করায় রাষ্ট্রায়ত্ত অগ্রণী ব্যাংকের কোম্পানি সচিব খন্দকার সাজেদুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। রোববার সন্ধ্যায় ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সূত্র জানায়, আদালতের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে একটি গ্রুপের ঋণ সংক্রান্ত তথ্য পাঠানো হয়। কিন্তু ফ্যাক্সে পাঠানো ওই চিঠি সম্পূর্ণরূপে যথাযথ জায়গায় পৌঁছায়নি। দায়িত্বে অবহেলার কারণে তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন আদালত। আদালতের নির্দেশে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।” বিভাগীয় স্পেশাল জজকোর্ট  সিলেটে ও বর্তমানে জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল, সিলেটে বিচারাধীন স্পেশাল ২১/০৯, ২৩/০৯,…

Read More

সৎ লোকের প্রকারভেদ।

আমরা ইতিপূর্বে অসৎ লোকের সংজ্ঞা বা প্রকারভেদ নিয়ে আলোচনা করেছি। এখন সৎ লোকের সংজ্ঞা বা প্রকারভেদ নিয়ে আলোচনা করব। সৎ লোক প্রধানতঃ চার প্রকারের।(আমাদের গবেষনামতে)।(১)প্রকৃত সৎ(২)সৎ কিন্তু vindictive (ক্ষমাহীন, ক্ষমাশূন্য, প্রতিহিংসাপরায়ন, সন্দেহপ্রবন) (৩)সুযোগের অভাবে সৎ (৪)সাহসের অভাবে সৎ। (১)প্রকৃত সৎঃ-এঁরা যেকোন পরিবেশ পরিস্থিতিতেই সৎ। ব্যবসা-চাকুরী বা অন্য যেকোন ক্ষেত্রেই সৎ। সমাজে, রাষ্ট্রে এঁদের সংখ্যা খুবই নগন্য।ইঁনারা vindictive নহেন, broadminded. (২)সৎ কিন্তু vindictive (ক্ষমাহীন, ক্ষমাশূন্য, প্রতিহিংসাপরায়ন, সন্দেহপ্রবন):-এরা কোন কোন ক্ষেত্রে অসৎ-দের চেয়েও খারাপ। এরা মনে করে তারা নিজেরাই সৎ বা ভাল, আর সবাই অসৎ বা খারাপ। (৩)সুযোগের অভাবে সৎ (৪)সাহসের অভাবে…

Read More

সততা-অসততার পার্থক্য।

প্রায় ৭বছর যাবৎ মামলার কাজে একই কোর্টের পরপর ৪জন জেলাজজকে সামনাসামনি তাদের বিচার কাজে দেখেছি। আরও কয়েকশত বিচারকের বিচারকাজ কয়েকশত দিন সামনাসামনি, একেকজনকে ধারাবাহিকভাবে ১৫-২০কার্য্যদিবস দেখেছি, যাদের মধ্যে শতাধিক জেলাজজ ও অতিরিক্ত জেলাজজ আছেন এবং অতিরিক্ত জেলাজজরা দায়রা বিচারে জেলাজজের সমান ক্ষমতাবান। তবে আজকের আলোচনা প্রথমোক্ত ৪(চার)জন জেলাজজকে নিয়েই। ১।এ ৪জনের প্রথমঃ- (ক)২জন আর্থিকভাবে অসৎ ইহা ১০০% নিশ্চিত। (খ)তাদের মারাত্মক দায়িত্ব-কর্তব্যে অবহেলা আছে। যেমন কাজ/এজলাস করার প্রচুর সময়, সুযোগ, প্রয়োজন থাকা সত্বেও তারা প্রতি কার্য্যদিবসে গড়ে ১(এক)ঘন্টাও এজলাস করেনি। দেশের আরও অনেক জেলাজজের তূলনায় মাসে/ বছরে অনেক কম সংখ্যক মামলা…

Read More

কোকিল ছানা, ঘুষখোর এবং …

কাকের বাসায় কোকিল ছানার বড় হওয়ার পর বুঝা যায় তা কাকের ছানা নহে, কোকিল ছানা। ঘটনা যাহাই হোকনা কেন, একসময় তা প্রকাশ হয়। তবে কোকিল ছানা কাকের বা কোকিলের অবৈধ সন্তান নহে। তবে আমাদের সমাজে লাখ লাখ কোটি কোটি অবৈধ সন্তান আছে, যাদেরকে চেনা যায়না। তবে তাদেরকেও চেনা যায়, কিন্তু আমরা বলিনা। ঘুষ-দুর্নীতির মাধ্যমে তাদেরকে চেনা যায়। ঢাকা মেডিক্যালের দুজন পুরুষ-মহিলা ডাক্তার গভীর রাত্রে মহিলা ডাক্তারের বাসায় তার স্বামীর অনুপস্থিতিতে রাত্রি যাপনকালে আশেপাশের লোকজনের হাতে আটক হন। যদিও সিংহভাগ ক্ষেত্রেই এসব প্রকাশ হয়না। যেহেতু মহিলা ডাক্তার বিবাহিতা এবং স্বামী জীবিত,…

Read More

Diabetes, over population, corruption.

নীরব ঘাতক বলে পরিচিত ডায়াবেটিস কোন জীবানুবাহিত বা ধূমপান, মদপান জাতীয় বদভ্যাসজনিত কোন রোগ নহে। সুস্থ শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় “চিনি” জাতীয় পদার্থ, ইত্যাদি যখন নানা কারনে প্রয়োজনের বেশী হয়ে রক্তে মিশে যায় তখনই তা ডায়াবেটিস রোগের রূপ ধারন করে। যেহেতু ইহা রক্তে মিশে থাকে, যেহেতু রক্ত শরীরের রন্ধ্রে রন্ধ্রে থাকে, যেহেতু এতে কোন ব্যথা অনুভূত হয়না, কোন কারনে রোগী টের না পেলে সীমা ছাড়িয়ে যায়, শরীরের অঙ্গ প্রত্যঙ্গ নীরবে ধ্বংস করে ফেলে, সেজন্য একে নীরব ঘাতক বলে। যাহাই হোকনা কেন, যে কারনে(বংশগত, ইত্যাদি)হোকনা কেন, শরীরের প্রয়োজনীয় তথা ভাল জিনিষ যখন…

Read More