লাওয়ারিশ নিম্ন আদালত, তুঘলকি কান্ড

[ইত্তেফাক-০৯ জুন ২০১৫-আইন কমিশনের অভিমত-বিচার বিভাগের ভঙ্গুর দশা।……….আইন কমিশন মনে করে, বিচারকের সংখ্যা বৃদ্ধি করলেই কেবল মামলার সংখ্যা কমবে না। কমিশন এ ব্যাপারে ১২ দফা করণীয় উপস্থাপন করেছে। মামলা নিষ্পত্তি পর্যবেক্ষণ করার জন্য একটি মনিটরিং সেল,………প্রথম আলো মতামত –সরল গরল–বিচারক নুরুল হুদা মডেল সংসদে আলোচিত হোক–মিজানুর রহমান খান | জুন ১৫, ২০১৫ | প্রিন্ট সংস্করণ ।………… এখন প্রধান বিচারপতির হতাশার কথা শুনে মনে হচ্ছে, এ বিষয়ে তেমন অগ্রগতি ঘটেনি। আগের মতোই অচলাবস্থা বিরাজ করছে।…………..কালের কন্ঠ -উপসম্পাদকীয়-১৬ জুন ২০১৫-বিচার বিভাগের বেহাল অবস্থা– এ এম এম শওকত আলী-কয়েক মাস ধরে বাংলাদেশের প্রধান…

Read More

১০ হাজার পিস ইয়াবার তথ্য গোপন করে জামিন-ক্ষমা চেয়ে ব্যারিস্টার খোকনের আবেদন।

আইনজীবীর ভুলে হেরে যান অনেক বিচারপ্রার্থী-এস কে সিনহা।-http://www.bd-pratidin.com/special/2015/05/17/81728- (বাংলাদেশ প্রতিদিন, ১৭-৫-২০১৫) …………….সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে এক সেমিনারে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বিচারকরা কতটা ভূমিকা নিতে পারবেন তা নির্ভর করে আইনজীবীদের ওপর। কিন্তু প্রায় ক্ষেত্রেই দেখা যায়, শুনানির সময় মামলার প্রধান বিষয়টি তারা স্পষ্ট করতে পারেন না। এই কারণে ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ মামলায় হার হয়। আবার মামলা জটও দেখা দেয়। ‘আইনজীবীদের পাশাপাশি বিচারপতিরাও মামলা জটের জন্য দায়ী‘ –http://www.kalerkantho.com/home/printnews/222973/2015-05-17 –আইনজীবীদের পাশাপাশি বিচারপতিদের অদক্ষতার কারণে মামলা জট লাগে বলে মন্তব্য করেছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাধারণ…

Read More

বাংলাদেশের নিম্ন আদালতের সিংহভাগ বিচারক কাফের

জাতিধর্ম নির্বিশেষে পৃথিবীতে বিচারকের মর্যাদা সবার উপরে। পবিত্র কোরআন শরীফে বিচারকদেরকে বলা হয়েছে আল্লাহর ছায়া। পূর্ববর্তী পর্ব “ন্যায়বিচার ন্যায়ভিত্তিক সমাজের অনুষঙ্গ” , সংবিধান, বাংলাদেশ সুপ্রীমকোর্টের আদেশ  এবং প্রচলিত আইন মোতাবেক বাংলাদেশের নিম্ন আদালতের সিংহভাগ বিচারক কাফের। ধর্মকে বা আল্লাহকে বিশ্বাস করা কোন মানুষের ব্যক্তিগত ব্যাপার। কিন্তু কাফেরদের মধ্যেও তাদের সমাজে ন্যায়নীতি আছে। উন্নত বিশ্বের উন্নত ন্যায়নীতির দেশের প্রায় সকলেই কাফের(ইসলাম ধর্মানুসারে)। আড়াই হাজার বছর পূর্বের চানক্য বা তারও বহু পূর্ব হতে বিভিন্ন কায়দায় ঘুষ চালু আছে। এপ্রচলিত নেশায়(ঘুষ খাওয়া বা ইউরোপ আমেরিকা, মালয়েশিয়ার কায়দায় স্পীডমানি) আসক্ত হয়ে  কেহ ঘুষ খায়।…

Read More

জেলাজজ, জঙ্গী ও কাফের

ধর্ম-বর্ন নির্বিশেষে বিচারকের মর্যাদা সবার উপরে। ইসলাম ধর্মে বিচারককে আরও উপরে স্থান দিয়েছে। যেমন বিচারককে আল্লাহর ছায়া বলা হয়েছে। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ ডিগ্রীপ্রাপ্তরা বিসিএসের(পূর্বে আইসিএস-সিএসপি-ইপিসিএস) মত অত্যন্ত প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় উত্তীর্ন হয়ে বিচারক নিয়োজিত হন। এ বিচারকরা ২০-২৫ বছর বিচারকাজ করে, অনেক অভিজ্ঞতার পর জেলাজজ হন। রাস্ট্রপতি, মন্ত্রী-প্রধান মন্ত্রীরা দেশের অভিভাবক। সর্বনিম্ন হতে সর্বোচ্চ পদের বিচারকরা পৃথিবীতে ন্যায়-নীতির অভিভাবক, ধারক-বাহক। জেলাজজরা তাদের ক্যাডারে ন্যায়-নীতির সর্বোচ্চ  অভিভাবক, ধারক-বাহক। ধর্ম নিয়ে যারা কাজ করেন, তারাও সমাজের সর্বোচ্চ মর্যাদাবান ব্যক্তি। তাদের কাজ সমাজের সকল ব্যক্তিকে উপাসনা করানোর শিক্ষা ও তাগিদ দেওয়া, ন্যায়নীতির শিক্ষা দেওয়া,…

Read More

সম্পাদকীয়-মাননীয় প্রধান বিচারপতি ও দুদক চেয়ারম্যান মহোদয়ের দৃষ্টি আকর্ষন

  দুদকের মাননীয় চেয়ারম্যানকে লিখা ২টি খোলা চিঠির সূত্রে অনুসন্ধান করতে গিয়ে দেখা যায় যে, সিলেটের বিভাগীয় স্পেশালজজ কোর্ট থেকে transferred, বর্তমানে জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল সিলেটে বিচারাধীন স্পেশাল মামলা নং-২১/০৯ ও ২৩/০৯ এর বিচারের সাথে জড়িত জেলাজজ পদমর্যাদার ৪জন বিচারকের standard, সততা/অসততা কত below হতে পারে, তা মামলার নথি না দেখলে কেহ কল্পনাই করতে পারবেনা। তারা আর্থিকভাবেই দুর্নীতিবাজ নহে, এটা করতে গিয়ে মাননীয় প্রধান বিচারপতি তথা মাননীয় উচ্চ আদালতের আইন কানুন, আদেশ নির্দেশের কোন তোয়াক্বাই তারা করেনি। তারা ভয়ানক অমানবিকতা, নির্মম নিষ্ঠুরতার পরিচয় দিয়েছে এখনও দিচ্ছে। এটা পূরো…

Read More

১৯বছর পূর্বে করা হত্যা মামলার বাদী ১৫বছর পূর্বে মৃত, মামলা জীবিত

নারায়নগঞ্জের আড়াই হাজারে ডাকাতির সন্দেহে ৮জনকে গনপিটুনী দিয়ে হত্যা করা হয়। এ সংবাদটি প্রথম আলোসহ প্রায় সকল পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। প্রথম আলোর অনলাইন সংস্করনেও প্রকাশ করা হয় যেখানে ৬৪জন পাঠক সরাসরি মন্তব্য করেন এবং লাইক-ডিসলাইকে মন্তব্যকারীর সংখ্যা প্রায় সহস্রাধিক। সিংহভাগ পাঠকের মন্তব্যে “বিচারহীনতা, বিচারে দীর্ঘসূত্রিতা”-কে এঘটনার জন্য দায়ী করেছেন। “বিচারহীনতা, বিচারে দীর্ঘসূত্রিতা”-র বিষয়টি জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান, সাবেক উপদেস্টা সুলতানা কামাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকসহ বহু বিচারপ্রার্থীর বক্তব্যেই কথাটি(“বিচারহীনতা, বিচারে দীর্ঘসূত্রিতা”) এসেছে। চট্টগ্রামে ১৯বছর পূর্বে করা একটি হত্যা মামলা হাইকোর্টেই ১২বছর স্থগিতাবস্থায় পড়ে ছিল! নিহতের মা, মামলার বাদী ১৫বছর পূর্বেই মৃত,…

Read More

৩জনের পাঁচ বছর করে কারাদণ্ড, প্রত্যেককে ৩০ লাখ ১২ হাজার ৪৯৮ টাকা করে জরিমানা

ভুয়া কাগজপত্রে ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে  আত্মসাতের অভিযোগে  ব্যাংকের এক কর্মকর্তাসহ তিনজনকে পাঁচ বছর করে কারাদণ্ড এবং প্রত্যেককে ৩০ লাখ ১২ হাজার ৪৯৮ টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেন আদালত। তদন্ত শেষে ১৯৯৬ সালের ১০ সেপ্টেম্বর তিন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। ২০০২ সালের ২১ জুলাই আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে এই মামলার বিচার শুরু হয়। চারজন সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে আদালত এ রায় দেন। ** এত অল্প স্বাক্ষী হওয়া সত্বেও মামলা নিষ্পত্তিতে এত দীর্ঘ সময় লাগবে কেন? এটাই প্রমান করে আদালতের দুর্নীতি, অযোগ্যতা, অদক্ষতা, দায়িত্ব-কর্তব্যে অবহেলা।

Read More

নিম্ন আদালতের কতিপয় বিচারক(সবাই নহে, যারা দুর্নীতি করে) নিকৃষ্টতম দুর্নীতিবাজ।

  দুর্নীতির ২টি মামলা নিষ্পত্তিতে ৪জন জেলাজজ ও তাদের অধীনস্থ কর্মচারীদের মধ্যে যে অনিয়ম দুর্নীতি আমরা দেখেছি, নিম্নে বর্নিত সকল অনিয়ম দুর্নীতি তাদের মধ্যে বিদ্যমান। সর্বোচ্চ ২-৩বছরে নিষ্পত্তিযোগ্য মামলা, ঘুষ না পেয়ে ৭-৮বছরেও নিষ্পত্তি না করে এভাবে মামলা নিষ্পত্তিতে বিলম্ব ঘটিয়ে বিচারপ্রার্থীদের জীবনীশক্তি ধ্বংস করার মাধ্যমে ৪(চার)জন জেলাজজ প্রমান করেছে তারা থাইল্যান্ডের জঙ্গলের মানবপাচারকারী/মুক্তিপন দাবীকারী মাফিয়াদের চেয়েও জঘন্য। মাফিয়ারাও মুক্তিপন দাবী করে না পেলে ভিক্টিমকে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়।  এ বিচারকরা শুধু মাফিয়া নহে, প্রখ্যাত সাংবাদিক জনাব মাহবুব কামালের ভাষায় এদেরকে খুনী-ধর্ষকের সমান্তরালে আসামীর কাঠগড়ায় দাঁড় করানো উচিৎ।…

Read More

বিচারাধীন বিষয়ে কেন সংবাদ প্রকাশ নহে?

বিচারাধীন বিষয়ে সংবাদ প্রকাশ করা যাবেনা, এরূপ কোন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক আইন নেই। বরং এরূপ বিধিনিষেধ আরোপের জন্য নূতন আইন করতে যাওয়ায় ভারতের সর্বোচ্চ আদালত বলেছেন, http://archive.prothom-alo.com/detail/news/288709 বিচারাধীন মামলার সংবাদ প্রকাশে বিধি নিষেধ নয়। ”বিচারাধীন মামলার সংবাদ প্রকাশের ক্ষেত্রে গণমাধ্যমের জন্য নির্দেশাবলি প্রণয়নের বিষয়টি নাকচ করেছেন ভারতের সর্বোচ্চ আদালত। গতকাল মঙ্গলবার ভারতের সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ এ মত দিয়েছেন। তবে আদালত বলেছেন, যদি কোনো ভুক্তভোগী প্রমাণ করতে পারেন যে গণমাধ্যমের প্রতিবেদন তাঁর ন্যায়বিচার পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে, সে ক্ষেত্রে সংবাদ প্রচারে সাময়িক স্থগিতাদেশ আরোপ করা যেতে পারে।…

Read More

নিম্ন আদালতের কতিপয় দুর্নীতিবাজ বিচারক ও সন্তান হন্তারক চরিত্রহীন মা।

মাদ্রাসা শিক্ষক মাওলানার স্ত্রী কুলসুম সমাজে সতী-সাধ্বী নারী হিসাবেই পরিচিত ছিল। কিন্তু গোল বাঁধে তার দুই নিষ্পাপ ছেলে। তারা মায়ের অনৈতিক কান্ড দেখে ফেলে। কুলসুম পূর্ববৎ সতী-সাধ্বী-ই থাকতে চেয়েছিল। সে তার সতী-সাধ্বী-রূপ মুখোশ নতুন করে পরতে গিয়ে দুই নিষ্পাপ ছেলেকে হত্যা করে। এভাবে সতী-সাধ্বী-রূপ মুখোশ পরা কুলসুম, মরিয়ম, সোনিয়া গং তাদের মুখোশ অব্যাহত রাখতে সন্তানকে হত্যা করে। হত্যাকান্ড দ্বারা তারা প্রমান করেছে যে, মুখোশের আড়ালে তারা পূর্ব থেকেই অসতী ছিল। দ্রস্টব্যঃ-দুই শিশুকে হত্যার কথা স্বীকার করলেন মা!- http://www.prothom-alo.com/bangladesh/article/703543, অনৈতিক কর্মকাণ্ড দেখে ফেলায় সন্তানকে হত্যা–http://bangla.samakal.net/2016/06/11/217773, ছেলে হত্যার অভিযোগে মাসহ চারজন গ্রেপ্তার-http://www.prothom-alo.com/bangladesh/article/337168/ …

Read More
1 2 3